‘পর্যটক আকৃষ্টে সবার উপরে কক্সবাজার’

21

পর্যটনের জন্য পর্যটক আকৃষ্টে সবার উপরে কক্সবাজার। এরপর রয়েছে বান্দরবান, সিলেট, সুন্দরবন, চিটাগাং, রাঙ্গামাটি, কুয়াকাটা, সেন্ট মার্টিন। প্রাইমএশিয়া ইউনিভার্সিটির এক গবেষণা জরিপে এ তথ্য উঠে এসেছে।
বুধবার (৩০ নভেম্বর) রাজধানীতে জাতীয় প্রেস ক্লাবে এক সেমিনারে এ তথ্য জানান প্রাইমএশিয়া ইউনিভার্সিটির ইন্টারন্যাশনাল ট্যুরিজম অ্যান্ড হসপিটালিটি ম্যানেজম্যান্টের লেকচারার মো. সাইফুল ইসলাম।

সাইফুল ইসলাম জানান, পর্যটনের জন্য সবচেয়ে বেশি চাহিদার এলাকা জানার জন্য চলতি বছরের ১ জুলাই থেকে ১৫ নভেম্বর পর্যন্ত সময়ে বিভিন্ন বয়সের ও বিভিন্ন পেশার ১ হাজার মানুষের উপর একটি জরিপ চালানো হয়। এরমধ্যে ৪১৭ জন বা ৪১.৭ শতাংশ মানুষ কক্সবাজারকে বেছে নিয়েছেন। এরপরে ১৪২ জনের ভোটে দ্বিতীয় স্থানে বান্দরবান, ১৩৩ জনের ভোটে তৃতীয় স্থানে সিলেট, ৭৯ জনের ভোটে চতুর্থ স্থানে সুন্দরবন ও ৫৪ জনের ভোটে ৫ম স্থানে রয়েছে চট্টগ্রাম।

এদিকে জরিপে পর্যটনের জন্য ভারতকে সবচেয়ে বেশি পছন্দ করেছে পর্যটকরা। ৩৯০ জনের বা ৩৯ শতাংশ ভোটে ১ নম্বরে ভারত। এরপরে ১১৩ জনের ভোটে দ্বিতীয় স্থানে নেপাল, ১০৩ জনের ভোটে তৃতীয় স্থানে থাইল্যান্ড, ৬০ জনের ভোটে চতুর্থ স্থানে মালয়েশিয়া ও ৫৬ জনের ভোটে ৫ম স্থানে রয়েছে ইংল্যান্ড।

সেমিনারে প্রধান অতিথির বক্তব্যে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্যুরিজম অ্যান্ড হসপিটালিটি ম্যানেজম্যান্টের প্রফেসর ড. সৈয়দ রাশিদুল হাসান বলেন, বাংলাদেশ আগামি দিনে পর্যটন খাতে অনেক এগিয়ে যাবে। যা দেশের আরএমজি খাতকে ছাড়িয়ে যাবে। আর পর্যটকরা পাঁচ তারকা হোটেল দেখতে পর্যটন করে না, তাই ইকো কটেজ তৈরি করার পরামর্শ দেন। একই সঙ্গে ভবিষ্যতে পর্যটকদের চাপ মোকাবেলায় মাস্টার প্লান করার দরকার বলে মনে করেন।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে প্রাইম এশিয়া ইউনিভার্সিটির ট্রেজারার এ.কে.এম আশরাফুল হক বলেন, বিশ্বের উন্নত দেশগুলোর তুলনায় বাংলাদেশের পর্যটন পিছিয়ে নেই। বাংলাদেশের পর্যটন কেন্দ্রগুলো অনেক সুন্দর। তবে অন্যদেশে যত সহজে চলাফেরা করা যায়, যানযট ও ভাঙ্গাচুরা রাস্তার কারনে তা বাংলাদেশে সম্ভব হয় না। এ ছাড়া অন্য দেশগুলোতে পর্যটন কেন্দ্রগুলো সঠিকভাবে পরিচর্যা করা হলেও বাংলাদেশে হয় না।

সভাপতির বক্তব্যে প্রাইমএশিয়া ইউনিভার্সিটির ট্যুরিজম অ্যান্ড হসপিটালিটি ম্যানেজম্যান্টের প্রধান ড. এআর খান বলেন, বাংলাদেশের পর্যটন মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী, বাংলাদেশ ট্যুরিজম বোর্ডের সিইও এবং বাংলাদেশ পর্যটন কর্পোরেশনের চেয়ারম্যান কেউই পর্যটন বিষয়ে দক্ষ নয়। ফলে বাংলাদেশের পর্যটন খাত এগোতে পারছে না। এসব বিষয়গুলো দেখা উচিত। এক্ষেত্রে যোগ্য লোককে যোগ্য জায়গায় বসানো উচিত।

কমেন্ট করুন

ফেসবুক পেইজে লাইক দিন